Header Ads

  • Breaking News

    নেপালে এ কোন বাংলাদেশ !



    গতকাল সন্ধ্যায় যখন আল-আমিন হোসেনের সঙ্গে ফোনে কথা হচ্ছিল, তখন তিনি ঝিনাইদহে। 


    কোন আল-আমিনের সঙ্গে কথা হচ্ছিল, তা খোলাসা করে বলা দরকার। এই আল-আমিন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার, বাংলাদেশের জার্সিতে যিনি ছয়টি টেস্ট, ১৪ ওয়ানডে ও ২৫টি টি২০ খেলেছেন। প্রায় চার বছর আগে জাতীয় দলে ঢোকা এই পেসারকে নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার গুরুতর কারণ আছে। নেপালের কাঠমান্ডুতে গতকাল বাংলাদেশ দলের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার পরিচয়ে আল-আমিন নামের একজন এশিয়ান প্রিমিয়ার লীগ খেলতে নেমেছিলেন; কিন্তু বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচে অংশ নেওয়া আল-আমিন তো একজনই। যিনি দেশেই অবস্থান করছেন। তাহলে নেপালে খেলতে থাকা এই 'আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার আল-আমিন' কে? কোত্থেকে উদয় হলেন?



    খটকা কাটাতে গিয়ে যোগাযোগ করা হয় বিসিবিতে, ঘাঁটাঘাঁটি করে দেখা হয় এশিয়ান প্রিমিয়ার লীগ নামের ওই ক্রিকেট টুর্নামেন্টের পূর্বাপর। তারপর যা বেরিয়ে এলো, তা আর 'আল-আমিন রহস্যে' সীমাবদ্ধ থাকল না; বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়েই একপ্রকার 'তামাশা'র খোঁজ পাওয়া গেল। যেখানে বিসিবির লোগো নিয়ে খেলছে 'বাংলাদেশি টাইগার্স' নামের একটি দল, যে দলে তথাকথিত আল-আমিন ছাড়া আর কেউ বাংলাদেশেরই নন!


    'এশিয়ান প্রিমিয়ার লীগ টি২০' নামের এই টুর্নামেন্টটির আয়োজন করেছে ভারতের চণ্ডিগড়ভিত্তিক স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি আলটিমেট স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট (ইউএসএম)। এ প্রতিষ্ঠানটি বিসিসিআই বা ভারতের রাজ্যভিত্তিক কোনো বোর্ডের সঙ্গেই সংশ্লিষ্ট নয়। নেপালে তাদের মাঠ ব্যবস্থা করে দিয়ে সহযোগিতা করছে নেপালের ন্যাশনাল স্পোর্টস কাউন্সিল। ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক এই টুর্নামেন্টে খেলছে ছয়টি দল; সবই এশিয়ান দেশের নামে_ বাংলাদেশ টাইগার্স, নেপাল স্টর্মস, ইন্ডিয়ান স্টার্স, শ্রীলংকান লায়ন্স, আফগানিস্তান বুলস ওং দুবাই ওয়ারিয়র্স। গত ১১ জুন কাঠমান্ডুতে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন করে আচমকাই টুর্নামেন্ট শুরুর ঘোষণা দেওয়া হয়। অংশগ্রহণকারী দলগুলোর অধিনায়ক আর মেন্টরের নামও ঘোষণা করা হয় এ সময়। যার মধ্যে আছে শ্রীলংকার তিলকারত্নে দিলশান ও পারভেজ মাহরুফ, পাকিস্তানের ইমরান নাজির ও রানা নাভেদ উল হাসান, ইংল্যান্ডের দিমিত্রি মাসকারেনহাস এবং জিম্বাবুয়ের চার্লস কভেন্ট্রিদের নাম। বাংলাদেশ টাইগার্সের অধিনায়ক হিসেবে আল-আমিন হোসেন আর মেন্টর হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক ক্রিকেটার জাস্টিন ক্যাম্পের নাম ঘোষণা করা হয়। কিন্তু পাকিস্তানের দু'জন ছাড়া উলি্লখিত ক্রিকেটার-মেন্টরদের কাউকেই গতকাল পর্যন্ত দেখা যায়নি। মজার বিষয় হচ্ছে, টুর্নামেন্ট শুরুর ঘোষণা দেওয়ার আগ পর্যন্ত এ সম্পর্কে কোনো ধারণা ছিল না খোদ নেপাল জাতীয় দলের অধিনায়ক পরশ খাদকারও। টুর্নামেন্টের বৈধতা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন তিনি।



    তবে টুর্নামেন্ট সংশ্লিষ্ট এসব অস্পষ্টতা বা অনিয়ম নয়, বাংলাদেশের চিন্তা মূলত বিসিবির লোগো ব্যবহার ও 'আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারের' অংশগ্রহণের কারণে। আল-আমিন নামের যে ক্রিকেটারটি সেখানে খেলতে গেছেন, অনুশীলনের সময় তার গায়ে দেখা গেছে বিসিবির লোগো সংবলিত জার্সি। বিসিবির প্রতিনিধিত্ব করছেন_ এমন বোঝাতে টুর্নামেন্ট নিয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানেও ওই একই পোশাকে উপস্থিত হয়েছেন তিনি। আর টুর্নামেন্টের প্রমো ভিডিওতে নিজেকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে। অথচ জাতীয় দলে খেলা পেসার আল-আমিন তো তিনি ননই, ঘরোয়া ক্রিকেটের পরিচিত মুখ আল-আমিন জুনিয়রও নন। বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেট যারা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করেন, তাদের কাছেও এই মুখ অচেনা। 'ইন্টারন্যাশনাল প্লেয়ার অব বাংলাদেশ' দাবি করা এই আল-আমিন আর টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ টাইগার্সের অংশগ্রহণ নিয়ে কথা হয় বিসিবির পরিচালক জালাল ইউনুসের সঙ্গে। মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকা এই পরিচালকের স্পষ্ট বক্তব্য, 'এ সম্পর্কে আমরা কিছুই জানি না। কত জায়গায় কত টুর্নামেন্টই তো হয়! কিন্তু তারা যদি বিসিবির লোগো ব্যবহার করে থাকে, তাহলে বিষয়টা অবশ্যই অনৈতিক হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি।' ঈদ উদযাপন করতে ঢাকা ছেড়ে ঝিনাইদহের গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করা আল-আমিনও বেশ অবাক এমন টুর্নামেন্টের কথা শুনে।

    No comments

    Post Top Ad

    ad728

    Post Bottom Ad