Header Ads

  • Breaking News

    গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি নিয়ে রিটের রায় ৩০ জুলাই

    এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের দুই ধাপে গ্যাসের দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্তের ওপর রিটের শুনানি শষে আগামী ৩০ জুলাই রায় ঘোষণার দিন ধার্য করা হয়েছে। 
    বিচারপতি জিনাত আরা ও বিচারপতি কাজী মা. ইজারুল হক আকন সমন্বয়ে গঠিত ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।
    গত ২৩ ফেব্রুয়ারি বিকেলে রাজধানীর কারওয়ানবাজারে বিইআরসি ভবনে সংবাদ সম্মেলন করে দুই দফায় গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা দেয় বিইআরসি। ঘোষণা অনুসারে, ১ মার্চ থেকে প্রতি চুলা গ্যাসের জন্য ৭৫০ টাকা। এটি ১ জুন থেকে ফের বেড়ে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয় ৯০০ টাকায়। আর ১ মার্চ থেকে দুই চুলা গ্যাসের জন্য খরচ যাবে ৮০০ টাকা, যা জুনে গিয়ে বেড়ে হওয়ার হচ্ছে ৯৫০ টাকা। এ ঘোষণা এখন কার্যকর রয়েছে। 
    ১ মার্চ থেকে প্রতি ঘনমিটার সিএনজি গ্যাসের দাম হয় ৩৮ টাকা। এটি ১ জুনে গিয়ে দাঁড়ায় ৪০ টাকা। মার্চ থেকে গ্যাসের বাণিজ্যিক ইউনিট প্রতি খরচ ১৪.২০ টাকা আর জুন থেকে এ ক্ষেত্রে খরচ ১৭.৪০ টাকা করা হয়।
    গত ২৮ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট এক আদেশে ১ জুন থেকে দ্বিতীয় ধাপে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ৬ মাসের জন্য স্থগিত করে আদেশ দেন। একইসঙ্গে আদালত গ্যাসের মূল বৃদ্ধি করে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের প্রকাশ করা বিজ্ঞপ্তি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না-তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করেন। চার সপ্তাহের মধ্যে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের চেয়ারম্যান, সচিবসহ তিনজনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। ফলে ১ জুন থেকে ৯০০ টাকা ও ৯৫০ টাকা মূল্য নির্ধারণ করে গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত স্থগিত হয়ে যায়। তবে প্রথম দফায় বাড়িয়ে গত ১ মার্চ থেকে একচুলা ৭৫০ টাকা ও ডাবল চুলা ৮০০ টাকা মূল্য নির্ধারণের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হয়। পরে হাইকোর্ট আদেশ আপিলে স্থগিত হওয়ায় দ্বিতীয় দফায়ও দাম বৃদ্ধি কার্যকর হয়।  
    গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বিষয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে রিটটি দায়ের করেন কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) পক্ষে মুবাশ্বির হোসেন। রিট আবেদনে গ্যাসের দাম বাড়ানো সংক্রান্ত বাংলাদেশ অ্যানার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) জারি করা বিজ্ঞপ্তির কার্যকারিতা স্থগিত চাওয়া হয়। রিটে বলা হয়, ‘বাংলাদেশ অ্যানার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন-২০০৪’ অনুসারে বছরে একবারের বেশি গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সুযোগ নেই। অথচ এ দফায় একবারেই দুই ধাপে মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তাছাড়া গণশুনানির মাধ্যমে ৯০ দিন পর গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির কথা। ফলে এবারের মূল্যবৃদ্ধিতে আইনের সেসব বিধানের ব্যত্যয় ঘটেছে।

    No comments

    Post Top Ad

    ad728

    Post Bottom Ad