Header Ads

  • Breaking News

    সুফল পেতে চট্টগ্রাম কাস্টমসে জনবল বাড়ানোর দাবি

    ২৪ ঘণ্টা পণ্য আমদানি-রপ্তানি সচল

    চট্টগ্রাম বন্দর
    দেশের প্রধান চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর দিয়ে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম ২৪ ঘণ্টা সচল রাখতে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই নির্দেশনা কার্যকর করতে চট্টগ্রাম কাস্টমস কর্তৃপক্ষ গত সোমবার ব্যবহারকারীদের সঙ্গে বৈঠকে বসে দিন-রাতে সর্বোচ্চ ১৩ ঘণ্টা কার্যক্রম চালু রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এ বিষয়ে অফিস আদেশ এখনো জারি করেনি কাস্টমস।
    চট্টগ্রাম বন্দর ও কাস্টমস ব্যবহারকারীরা বলছেন, আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম ২৪ ঘণ্টা চালু রাখার সুফল পেতে চট্টগ্রাম কাস্টমসে দ্রুত লোকবল সংকট কাটাতে হবে, আর কাস্টমসের শুল্ক ও বন্দরের মাসুল জমা দিতে সন্ধ্যা পর্যন্ত ব্যাংক চালু রাখতে হবে। অন্যথায় এর পুরো সুফল মিলবে না।
    নতুন সিদ্ধান্তের বিষয়ে চট্টগ্রাম কাস্টমস কমিশনার এ এফ এম আবদুল্লাহ খান বলেন, ‘বন্ধের দিন শুক্র ও শনিবার দুপুর ১২টা নাকি ১টা সেটা অফিস আদেশে পরিষ্কার করা হবে। সোমবার বৈঠকের সিদ্ধান্ত বুধবার অফিস আদেশ জারি করে নিশ্চিত করা হবে। তবে আমরা চাইছি যতক্ষণ গ্রাহক থাকবে ততক্ষণ কাজ চালাতে। সাময়িকভাবে এভাবে চললেও পরবর্তী সময় আমরা তিন শিফটেই কাজ চালু রাখব। ’
    লোকবল বাড়ানোর জন্য আবেদন করেছি সেটি মিটে গেলে এবং আমদানি-রপ্তানিকারকদের সাড়ার ওপর পর্যায়ক্রমে ২৪ ঘণ্টা চালুর বিষয়টি নির্ভর করছে বলেও তিনি মত দেন।
    এদিকে সোমবারের বৈঠকে আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম ২৪ ঘণ্টা চালু রাখতে সব ব্যবহারকারী একমত হয়েছেন। বৈঠকে কাস্টম হাউসে অবস্থিত সোনালী ব্যাংক বিকেল ৫টা পর্যন্ত লেনদেন চালু এবং সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত পে-অর্ডার নেওয়া চালু রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কিন্তু সোনালী ব্যাংক বিকেল ৪টার পর লেনদেন চালুু রাখা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। কারণ সারা দেশে অনলাইনে টাকা জমা উত্তোলনের সার্ভার খোলা থাকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।
    তবে সোনালী ব্যাংক কাস্টম হাউস শাখার সহকারী মহাব্যবস্থাপক মোহাম্মদ ফোরকান বলেন, ‘প্রি-পেইড অ্যাকাউন্ট থাকায় রপ্তানি পণ্যের মাসুল ২৪ ঘণ্টা কোনো ঝামেলা ছাড়াই পরিশোধ করা যায়। আমদানি পণ্যের ক্ষেত্রে এই ধরনের প্রি-পেইড অ্যাকাউন্ট করা হয় তাহলে দিন-রাতে যেকোনো সময় নিরাপদে লেনদেন করা সম্ভব। এ বিষয়গুলো কাস্টমস কমিশনার এবং সোনালী ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন মহলে জানিয়েছি। ’
    ২৪ ঘণ্টা পণ্য আমদানি-রপ্তানির সঙ্গে সরাসরি জড়িত সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টরা। তাদের প্রস্তুতির বিষয়ে চট্টগ্রাম সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী মাহমুদ ইমাম বিলু বলেন, ‘কাস্টমসের লিখিত নির্দেশনা পেলে দুই হাজারের অধিক সদস্য সবাইকে ই-মেইলে জানানো হবে। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকেই আমরা সিঅ্যান্ডএফ কার্যক্রম চালু রাখব। ’
    সুফলের বিষয়ে তিনি বলেন, জেটিতে আমদানি পণ্যের পরীক্ষা দিনের মধ্যে শেষ করে শুল্ক পরিশোধ করে ডেলিভারি অর্ডার নিয়ে বন্দর থেকে খালাস নেওয়া সম্ভব হবে, যা হবে একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এ জন্য কাস্টমসের জনবল বাড়ানোর কোনো বিকল্প নেই।
    নির্দেশনা কার্যকর করতে বাংলাদেশ শিপিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি আহসানুল হক চৌধুরী বলেন, ‘কাস্টমসের সিদ্ধান্ত লিখিতভাবে পাওয়ার আগেই আমরা গতকাল মৌখিকভাবে সাড়ে ৪০০ সদস্যকে জানিয়ে দিয়েছি। শুক্রবার দুপুর ১২টা এবং বাকি দিন সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত শিপিং এজেন্ট অফিসগুলো আমরা খোলা রাখতে শুরু করেছি। এই সময়ে আমরা ডেলিভারি অর্ডার দেব। ’
    পণ্য জাহাজীকরণের সঙ্গে সম্পৃক্ত বাংলাদেশ ফ্রেইট ফরোয়ার্ডার অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালক খায়রুল আলম সুজন বলেন, ‘সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ব্যাংকে পে-অর্ডার দিতে পারলে বন্দরে পণ্যের স্তূপ অনেক কমবে, ডেমারেজ চার্জ থেকে রক্ষা পাবে আমদানি-রপ্তানিকারকরা। তবে সুফল পেতে অবশ্যই ব্যবহারকারী সংস্থাগুলোর সঙ্গে সমন্বয় ও তদারকি করতে হবে। ’
    গত ২ জুলাই সচিব কমিটির সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৪ ঘণ্টা পণ্য আমদানি-রপ্তানি কার্যক্রম চালুর নির্দেশনা দেন। এরপর গত ৬ জুলাই এনবিআরের সদস্য (শুল্কনীতি) মো. লুুত্ফর রহমান এসংক্রান্ত বিশেষ আদেশ জারি করেন।
    উল্লেখ্য, বর্তমানে চট্টগ্রাম বন্দরের ভেতর জাহাজ থেকে পণ্য ওঠানামা কার্যক্রম সপ্তাহে সাত দিন ২৪ ঘণ্টা চালু থাকে। তবে প্রশাসনিক কার্যক্রম চালু থাকে সপ্তাহে পাঁচ দিন। এর ফলে যেকোনো দিন যেকোনো সময় বন্দর থেকে পণ্য ডেলিভারি নেওয়া সম্ভব হয় না। সাপ্তাহিক বন্ধের দিন আগে থেকেই ডেলিভারি অর্ডার নিয়ে রাখতে হয়। কিন্তু চট্টগ্রাম বন্দরের ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু থাকলে তাত্ক্ষণিকভাবে চাইলে পণ্য ডেলিভারি সম্ভব।

    No comments

    Post Top Ad

    ad728

    Post Bottom Ad