Header Ads

  • Breaking News

    ওয়ানডের নেতৃত্বও ছাড়লেন ডি ভিলিয়ার্স

    Daily_Sangbad_Pratidin_D_viliyards.jpg

    গুঞ্জন ছিল হয়তো আর টেস্ট ক্রিকেটে ফিরবেন না ডি ভিলিয়ার্স। অনেকে নানা রকম মন্তব্য করলেও তিনি ছিলেন চুপ। এবার নীরবতা ভাঙলেন। আর নীরবতা ভেঙে ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিলেন। তবে তিন ফরম্যাটের ক্রিকেটই চালিয়ে যাবেন এই তারকা।

    চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে দলের ব্যর্থতার পর কথা ওঠে তার অধিনায়ক্ব নিয়ে। এরই মাঝে আগামী বিশ্বকাপ পর্যন্ত দলকে নেতৃত্ব দিতে চেয়েছিলেন। তবে সেই ঘোষণার দুই মাসপরই ওয়ানডের দায়িত্ব ছাড়ার ঘোষণা দিলেন। আর মূলত ডু প্লেসির নেতৃত্ব গুণ দেখেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানালেন ডি ভিলিয়ার্স।

    এ নিয়ে এবি ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘ফাফ ডু প্লেসিস প্রমাণ করেছে যে সে টি-টোয়েন্টি ও টেস্টে অসাধারণ একজন অধিনায়ক। এই বিষয়টি মাথায় রেখেই আমি ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকাকে জানিয়েছি যে, আমি ওয়ানডে ফরম্যাটে অধিনায়কের পদ ছেড়ে দিতে চাই।’

    তিনি আরও বলেন, ‘গত ছয় বছর ধরে সাউথ আফ্রিকা দলকে নেতৃত্ব দেয়াটা সম্মানের। কিন্তু এখনই সময় ওয়ানডে দলকে অন্য কারও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার। ওয়ানডেতে যেই নতুন অধিনায়ক নির্বাচিত হোক সে আমার সম্পূর্ণ সমর্থন পাবে।’

    ২০১৬ সালের জানুয়ারির পর চোটের কারণে আর টেস্ট খেলেননি ডি ভিলিয়ার্স। কিছুদিন আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ হারার পর ডু প্লেসি বলেছিলেন, ডি ভিলিয়ার্সের টেস্টে আবার ফেরার আশা তিনি খুব একটা করেন না। সব মিলিয়ে ধারণা করা হচ্ছিলো, তার টেস্ট ক্যারিয়ার শেষ।

    তবে সব গুঞ্জন থামিয়ে ডি ভিলিয়ার্স ফেরার ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘বর্তমানে নিজেকে পুনরুজ্জীবিত মনে হচ্ছে। তাই মাঠে ফিরতে চাই। নির্বাচকদের জানিয়ে দিয়েছি আসছে মৌসুমে তিন সংস্করণেরই জন্যই পাওয়া যাবে আমাকে। তবে নেটে অনেক ঘাম ঝরাতে হবে নিজের ঠিকভাবে প্রস্তুত হতে। হয়তো অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে খেলতে পারবো।’

    অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ে খেলার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে থাকছেন না ডি ভিলিয়ার্স নিশ্চিতভাবেই। দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট ২৮ সেপ্টেম্বর, দ্বিতীয় টেস্ট ৬ অক্টোবর।

    No comments

    Post Top Ad

    ad728

    Post Bottom Ad