Header Ads

  • Breaking News

    ঘুষের মামলায় সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

     ফেনীর পরশুরাম
    চাকরি দেওয়ার কথা বলে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে ফেনীর পরশুরাম উপজেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন দেবকে গ্রেপ্তার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পরশুরাম উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় দুদকের রাঙ্গামাটি সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপপরিচালক সফিকুর রহমান ভূঁঞাসহ তিন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন। অপর দুজন হচ্ছেন দুদকের রাঙ্গামাটি কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম ও উপসহকারী পরিচালক রিয়াজ উদ্দিন। 


    দুদক সূত্র জানায়, গত বছর সুমন দেব রাঙামাটি জেলার বরকল উপজেলায় সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ওই সময় তিনি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাকরি দেওয়ার কথা বলে স্থানীয় তিন ব্যক্তির কাছ থেকে মোট ১৩ লাখ টাকা ঘুষ নেন। পরে চাকরি না পাওয়া ব্যক্তিরা টাকা ফেরত চাইলে টালবাহানা শুরু করেন। তিন মাস আগে তিনি ফেনীর পরশুরাম উপজেলায় সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা হিসেবে বদলি হয়ে আসেন। পরে ক্ষতিগ্রস্তরা দুদকের রাঙামাটি কার্যালয়ে অভিযোগ করেন। অনুসন্ধান শেষে অভিযোগের সত্যতা পেয়ে গতকাল দুদকের সহকারী পরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে রাঙ্গামাটি কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা করেন। এরপর রাঙ্গামাটি থেকে দুদকের তিন কর্মকর্তা পরশুরাম এসে সুমনকে গ্রেপ্তার করেন। 

    দুদকের উপপরিচালক সফিকুর রহমান ভূঁঞা বলেন, সুমনকে পরশুরাম মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘুষের টাকা তিনি তাঁর বাবা বাবুল চন্দ্র দেবের ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়েছেন বলে প্রাথমিকভাবে প্রমাণ পাওয়া গেছে। এ মামলায় তাঁর বাবাকেও আসামি করা হবে। 

    পরশুরাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম বলেন, গ্রেপ্তার ব্যক্তিকে ফেনীর বিচারিক হাকিম আদালতে পাঠানো হয়েছে। পরে তাঁকে রাঙ্গামাটি পাঠানো হবে।

    No comments

    Post Top Ad

    ad728

    Post Bottom Ad